অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ভ্যাকসিনের দাবি চীনে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা
চীনে ফিরে যেতে না পারলে তাদের শিক্ষাজীবন অনিশ্চয়তার মুখে পড়বে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বারবার আশ্বাস দিয়েও ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করেনি।

অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ভ্যাকসিনের দাবি চীনে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা

ইমিগ্রেশন নিউজ ডেস্ক :

অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ভ্যাকসিন দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন চীনের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা। এসময় বিশেষ ব্যবস্থায় স্টুডেন্ট ভিসা চালু করতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও চীনা রাষ্ট্রদূতের সহযোগিতা চেয়েছেন তারা। করোনার টিকা নিয়ে অনিশ্চিয়তা তৈরী হওয়ায় চায়নায় অধ্যয়নরত ছয় থেকে সাত হাজার শিক্ষার্থীর ক্যারিয়ার হুমকির মুখে পড়েছে বলছেন তারা।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে চায়নাতে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের এক মানববন্ধন থেকে এমনটাই দাবি জানানো হয়। শিক্ষার্থীরা জানান, চীনে ফিরে যেতে না পারলে তাদের শিক্ষাজীবন অনিশ্চয়তার মুখে পড়বে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বারবার আশ্বাস দিয়েও ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করেনি।

মানববন্ধন থেকে শিক্ষার্থীরা বলেন, রাষ্ট্রের কাছে আমাদের প্রত্যাশা সামান্য। আমরা চায়না থেকে আগত ভ্যাকসিনে অগ্রধিকার চাই। আমরা ক্যাম্পাসে ফিরতে চাই। আমাদের চাইনিজ ইউনিভার্সিটি, চাইনিজ গভমেন্ট এবং বাংলাদেশে অবস্থিত চাইনিজ দূতাবাসের পক্ষ থেকে অনেকটাই আন্তরিকতা দেখাচ্ছে এবং তারা আমাদেরকে ফিরিয়ে নিতে চায় ভ্যাকসিনেশন করে।

তারা আরও বলেন, বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় শিক্ষার্থীদের যথেষ্ট সহযোগিতা করে যাচ্ছে এবং আমাদেরকে চায়নায় ফেরাতে মন্ত্রণালয় আপ্রাণ চেষ্টা করছে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করছে। কিন্তু স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বা অধিদপ্তরের একটু গাফিলতির কারণে চাইনিজ ভ্যাকসিন পাওয়া থেকে অনিশ্চয়তায় মধ্যে পড়েছি।

`আমরা আশা করব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আমাদের বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখবেন, যাতে খুব অল্প সময়ের মধ্যে বাংলাদেশে অবস্থানরত চায়নার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীরা ফিরে যেতে পারি।’

Leave a Reply