ইউরোপে সাংবাদিকতা ও প্রকাশনায় কর্মসংস্থান কমছে
সাংবাদিকরা ঝুঁকি সত্ত্বেও ছুটেছেন সংবাদ সংগ্রহে।

ইউরোপে সাংবাদিকতা ও প্রকাশনায় কর্মসংস্থান কমছে

ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী, পর্তুগাল :

করোনা মহামারিতে পুরো বিশ্বের চোখ ছিল সংবাদমাধ্যমের দিকে। সাংবাদিকরা ঝুঁকি সত্ত্বেও ছুটেছেন সংবাদ সংগ্রহে। তবে খুশির খবর নেই ইউরোপের সংবাদকর্মীদের জন্য। কেননা, গত ১০ বছরে মধ্যে ২০২০ সালে ইউরোপিয়ান মোট কর্মসংস্থানে সাংবাদিকতা ও প্রকাশনা শিল্পের সঙ্গে জড়িত ছিলেন মাত্র ০.৪০ শতাংশ পেশাজীবী, যা ২০১৯ সালের তুলনায় প্রায় ০.১৫ শতাংশ কম। অর্থাৎ, এ শিল্পে কর্মসংস্থান কমেছে।

২০১৯ সালে ইউরোপীয় ইউনিয়নের ২৭টি দেশে এই শিল্পে জড়িত ছিলেন ১০ লাখ ৯৩ হাজার ৫০০ জন কর্মী, অথচ ২০২০ সালে তা নেমে এসেছে ৭ লাখ ৮৮ হাজার  ৯০০ জনে। ২০১১ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত সময়ে দ্বিতীয় সর্বনিম্ন সংখ্যা ছিল ২০১৪ সালে ০.৪৯ শতাংশ, যা ২০২০ সালের চেয়েও ০.০৯ শতাংশ বেশি।

ইইউর হিসাব অনুযায়ী, ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলোর মধ্যে সুইডেনে মোট কর্মসংস্থানের সর্বোচ্চসংখ্যক (৪১ হাজার ১০০) ০.৮১ শতাংশ মানুষ সাংবাদিকতা এবং প্রকাশনা শিল্পের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। ফিনল্যান্ডে ০.৬৫ শতাংশ, ডেনমার্কে ০.৬১ শতাংশ, জার্মানিতে ০.৫৮ শতাংশ, ফ্রান্সে ০.৫৩ শতাংশ মানুষ এই শিল্পের সঙ্গে জড়িত রয়েছেন।

এই কর্মসংস্থানে সবচেয়ে কম সংখ্যক পেশাজীবী যে দেশগুলোতে রয়েছেন, তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- রোমানিয়া ও বুলগেরিয়া ০.১৫ শতাংশ, আইবেরিয়ান পেনিনসুলার দুটি দেশ স্পেনে ০.২৯ শতাংশ এবং পর্তুগালে ০.২৩। এছাড়া এই দুই দেশের সঙ্গে ঐতিহ্যগতভাবে সামঞ্জস্যপূর্ণ দেশ ইতালিতে ০.২৭ শতাংশ মানুষ মোট কর্মসংস্থানের অংশ হিসেবে প্রকাশনা শিল্পের সঙ্গে জড়িত রয়েছেন।

ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে সাংবাদিকতা ও প্রকাশনা শিল্পের সঙ্গে জড়িত পেশাজীবীর সংখ্যা কমলেও সাংবাদিকদের স্বাধীনতা ও কাজের পরিবেশ বিবেচনায় ইইউর সাংবাদিকরা বিশ্বের অন্যান্য দেশের চেয়ে ভালো অবস্থানে রয়েছেন, যা ওয়ার্ল্ড প্রেস ফ্রিডম ইনডেক্স-এর ২০২১ সংস্করণে উঠে এসেছে।

Leave a Reply