চাকরি খোঁজা যখন ফেসবুকে
চাকরি খোঁজা এখন ফেসবুকেই। ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে ফেসবুক চাকরি বিষয়ক নতুন ফিচার ‘জবস’ চালু করেছে।

চাকরি খোঁজা যখন ফেসবুকে

ইমিগ্রেশন নিউজ ডেস্ক:
চাকরি খোঁজা এখন ফেসবুকেই। ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে ফেসবুক চাকরি বিষয়ক নতুন ফিচার ‘জবস’ চালু করেছে। এর ফলে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা এখন ফেসবুকে নিয়োগের পোস্ট করতে পারেন। সেসব পোস্টে চাকরিপ্রার্থীরা অ্যাপ্লাই করে দ্রুত সময়ের মধ্যে চাকরিও পাচ্ছেন।
কীভাবে এগোবেন :
ফেসবুকে আপনি যে তথ্য পাবলিক করে প্রকাশ করেছেন, শুধু সেই তথ্যই নিয়োগকারী কোম্পানিগুলো দেখতে পারবেন। তারপরেও প্রশ্ন ওঠে চাকরিদাতাদের সামনে আপনি কী উপস্থাপন করবেন?
অনেকেই ফেসবুক আইডিকে গোপন রাখার জন্য প্রাইভেসি সেটিংস ব্যবহার করেন। ফেসবুকে প্রাইভেসি সেটিংস ব্যবহার করে চাকরি খুঁজলে তথ্যের গোপনীয়তা নষ্ট হয় না। মনে রাখা ভালো, সিভিতে আপনার সব তথ্য স্পষ্টভাবে তুলে ধরতে হবে। যাতে নিয়োগকারী বা চাকরিদাতা আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক ধারণা নিতে পারেন। অর্থাৎ নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানকে আপনার দক্ষতার ব্যাপারে ভালোভাবে অবহিত করতে হবে।
চাকরি খোঁজা :
ফেসবুকে দুইভাবে চাকরির খবর পাওয়া যায়- প্রথমত ফেসবুক পেজের জবস ট্যাবের মাধ্যমে এবং পৃথক জবস ফিচারের মাধ্যমে। অবস্থান, ইন্ডাস্ট্রি, দক্ষতা এবং চাকরির ধরন উল্লেখ করলেই ফেসবুকে চাকরি পাওয়া সম্ভব। আপনি যদি স্মার্টফোনে ফেসবুক ব্যবহার করেন তাহলে যেকোনো প্রতিষ্ঠানের পেজের জবস ট্যাব অথবা জবস ফিচারে চলে যান এবং এই কাজগুলো করুন-
• পছন্দমতো কোনো চাকরি পেলে ‘অ্যাপ্লাই নাও’ বাটনে ক্লিক করুন। এবার আপনি একটি পেজ দেখতে পাবেন যেখানে আপনার নাম, শিক্ষাগত যোগ্যতা এবং অন্যান্য তথ্য চাওয়া হয়েছে।
• সাবমিট করার আগে একবার সব তথ্য ঠিকঠাক লেখা হলো কি না সেটি যাচাই করে নিন। কারণ সাবমিট হয়ে গেলে এডিট করার সুযোগ থাকবে না।
• জীবনবৃত্তান্ত আপলোড করুন। এর সঙ্গে আপনি কেন চাকরিতে অ্যাপ্লাই করছেন এবং কোন কোন বিষয়ে আপনার দক্ষতা রয়েছে সেগুলো নিয়ে একটি কভার লেটার লিখুন।
• এবার ‘সেন্ড’ বাটনে ক্লিক করলে ইনবক্সে বা মেসেঞ্জারে কোম্পানির পক্ষ থেকে অটো-মেসেজ আসবে।
• অ্যাপ্লাই শেষে কোম্পানির পেজে লাইক দিন। এর মাধ্যমে পরবর্তীতে কখনো কোম্পানিটি চাকরির অফার করলে সেটি আপনার নিউজফিডে দেখানো হবে।

Leave a Reply