চীন সরকারের বৃত্তি নিয়ে উচ্চশিক্ষা

চীন সরকারের বৃত্তি নিয়ে উচ্চশিক্ষা

ইমিগ্রেশন নিউজ : পশ্চিমা বিশ্বের নানা নাক ছিঁটকানো থাকলেও চীন এগিয়ে যাচ্ছে অন্য সব পরাশক্তিকে টেক্কা দিয়ে। বিশ্ব মহামারীর সূচনা চীনে হলেও দেশটি সবার আগেই ঘুরে দাঁড়িয়েছে। বিশ্বের সবচেয়ে জনবহুল দেশ শুধু নয়, বিশ্ব অর্থনীতির পরাশক্তি চীন। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সবদিক থেকে পাল্লা দেওয়ার সামর্থ রাখে কেবল চীন। শুধু অর্থ-বাণিজ্যেই নয়, শিক্ষা-প্রযুক্তিতেও এগিয়ে দূরপ্রাচ্যের দেশটি। প্রাচীনকাল থেকেই একই ধারায় এগিয়ে চলেছে চীন। চীন সরকার প্রতি বছর উচ্চশিক্ষায় বৃত্তি প্রদান করে থাকে।

চীন সরকারের বৃত্তি : চীনের উচ্চশিক্ষা বৃত্তির নাম হলো-সিএসসি। এর পূর্ণরূপ হচ্ছে- চাইনিজ স্কলারশিপ সেন্টার। এটি সরাসরি চীন সরকার কর্তৃক প্রদান করা হয়।  এর
আওতায় আছে ২৫০ চীনা বিশ্ববিদ্যালয়। ইতিহাস, সাহিত্য, দর্শন ও চারুকলা ইত্যাদি বিষয়ে সম্পূর্ণ পড়ালেখার খরচসহ যাবতীয় খরচের বৃত্তি দেওয়া হয়। সাধারণত স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডির জন্য বৃত্তি প্রদান করা হয়।

জরুরি বিষয় : চীনা বৃত্তির জন্য আবেদন করতে হলে একাডেমিক পরীক্ষার সনদ, মার্কশিট, দুটি প্রত্যয়ন পত্র, মেডিকেল সার্টিফিকেট সাবমিট করতে হবে। আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হলে পুরো ফর্মটি প্রিন্ট করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে জমা দিতে হবে। চীন সরকারের বৃত্তি পেতে চাইলে চীনা ভাষায় দক্ষতার সনদ থাকতে হবে! সেটি না থাকলে বৃত্তি পাওয়ার পর চীনে গিয়ে এক বছর বাধ্যতামূলক চীনা ভাষা শিখতে হবে! সাধারণত ফেব্রুয়ারি থেকে এপ্রিলের মধ্যে চীন সরকারের বৃত্তির সার্কুলার প্রকাশ করা হয়।

বিস্তারিত জানার জন্য নিচের লিংকে ভিজিট করতে হবে- http://www.csc.edu.cn/laihua/

Leave a Reply