পর্তুগালের অদিমিরাতে অভিবাসীদের ব্যবসা-বাণিজ্যে অনিয়ম
অধিকাংশ কোম্পানিগুলো সরকারের বিপুল পরিমাণ ভ্যাট ও আয়কর পরিশোধ না করে উধাও হয়ে যায় এবং তাদেরকে পরবর্তীতে খুঁজে পাওয়া যায় না।

পর্তুগালের অদিমিরাতে অভিবাসীদের ব্যবসা-বাণিজ্যে অনিয়ম

ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী, পর্তুগাল : 

পর্তুগালের অদিমিরা শহরের মেয়র গত ২রা মে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে জানান কৃষিপ্রধান এই অঞ্চলে অভিবাসী প্রতিষ্ঠানে প্রয়োজনের তুলনায় অতিরিক্ত কর্মী বাহিনী রয়েছে যা একটি অন্য উদ্দেশ্য প্রকাশ করে।
তিনি উদাহরণ দিয়ে বলেন, ২০০ বর্গমিটার একটি সুপার মার্কেটে অফিশিয়ালি ৩০ থেকে ৪০ জন কর্মচারী রয়েছে যা আয়তন অনুযায়ী তা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। তাছাড়া বিভিন্ন পাবলিক প্লেসে কিছু পানিয় বিক্রয়ের নির্ধারিত স্থানে রয়েছে সেখানে সাধারণের চেয়ে ১০ গুণ বেশি কর্মচারী রয়েছে। আর এ সকল ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানগুলো বা কর্মরত লোকজন সবাই অভিবাসী।

তিনি আরো একটি উদ্বেগের সহিত যোগ করেন যে এ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের বেশিরভাগই লেনদেন হয় নগদ অর্থে । তিনি আশ্চর্যজনক মনোভাব প্রকাশ করে বলেন যে এটা কিভাবে সম্ভব যে আপনি একটি গাড়ি এবং একটি বাড়ি কিনবেন সম্পূর্ণ নগদ অর্থের বিনিময়ে।

পর্তুগালের (পুলিসিয়া জুডিসিয়ারিয়া ) বিচার বিভাগীয় পুলিশ উক্ত বিষয়টি নিশ্চিত করে এবং রিপোর্ট উপস্থাপন করে। তিনি আরো জানান এ ধরনের অধিকাংশ কোম্পানিগুলো সরকারের বিপুল পরিমাণ ভ্যাট ও আয়কর পরিশোধ না করে উধাও হয়ে যায় এবং তাদেরকে পরবর্তীতে খুঁজে পাওয়া যায় না।

এ ধরনের সংবাদ অভিবাসী বান্ধব পর্তুগালের জন্য কোনোভাবেই কাম্য নয় কেননা পর্তুগাল ইউরোপের অন্যতম দেশ যেখানে খুব সহজ শর্তে অভিবাসীরা ইউরোপ গেটওয়ে হিসেবে বসবাস করার সুযোগ পায় এবং এ ধরণের অনিয়ম ধীরে ধীরে অভিবাসীদের জন্য কঠিন পরিস্থিতি তৈরি করবে। পর্তুগালের অদিমিরা শহরের মেয়র গত ২রা মে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে জানান কৃষিপ্রধান এই অঞ্চলে অভিবাসী প্রতিষ্ঠানে প্রয়োজনের তুলনায় অতিরিক্ত কর্মী বাহিনী রয়েছে যা একটি অন্য উদ্দেশ্য প্রকাশ করে।

Leave a Reply