পর্তুগালে জরুরি স্বাস্থ্যসেবা কর্মীদের বিক্ষোভ
পর্তুগালে আধুনিক অ্যাম্বুলেন্সসহ বিভিন্ন দাবিতে স্বাস্থ্যসেবা কর্মীদের বিক্ষোভ

পর্তুগালে জরুরি স্বাস্থ্যসেবা কর্মীদের বিক্ষোভ

ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী, পর্তুগাল :

ইউরোপের দেশ পর্তুগালের জরুরি সেবা নম্বর ১১২-তে ফোন করার পর যারা অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে হাজির হোন, তারাই আজ দেশটির রাজধানী লিসবনের রাস্তায় নেমেছিলেন। উন্নত কাজের পরিবেশ, অ্যাম্বুলেন্স আধুনিকীকরণ, বেতন-ভাতা বৃদ্ধিসহ বেশকিছু দাবি আদায়ে স্বাস্থ্য খাতের এসব কর্মীরা রাস্তায় নামেন।

পর্তুগালের (ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল ইমার্জেন্সি-আই এন‌ ই এম) জাতীয় জরুরি স্বাস্থ্য সেবা কর্মীদের সংগঠন সিন্ডিকাটো ডোস টেকনিকো ডে ইমার্জেন্সিয়া  প্রি হসপিটালার-এর উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিলটি অনুষ্ঠিত হয়।

বিক্ষোভ অংশ নেওয়া জরুরি বিভাগে কর্মরত রুই ক্রুজ ঢাকা পোস্টকে জানান- রোগীকে জরুরি সেবা দিতে আমাদের অ্যাম্বুলেন্সগুলো আধুনিকীকরণ করা প্রয়োজন। তাছাড়া আমাদের জীবনযাত্রার মান অনুযায়ী বেতন অনেক কম। বেশকিছু বছর ধরে কোনো বেতন বৃদ্ধি হচ্ছে না। করোনাভাইরাস মহামারিতে কর্ম পরিবেশ সম্পর্কে প্রশ্ন করলে তিনি জানান, মহামারীতে পর্তুগাল ভালো অবস্থানে রয়েছে। তবে যখন আমরা খারাপ সময় পার করছিলাম তখন এমনও সময় গেছে সপ্তাহের সাতদিন বিরতিহীনভাবে কাজ করেছি। এমনকি নিজেদের সুরক্ষা উপকরণ ছাড়াই।

তিনি আরও বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আমাদের দিকে সরকারের নজর নেই। আমরা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। আমাদের জীবনযাত্রার মান থেমে আছে। এ বিষয়ে সরকারের দৃষ্টি কামনা করার জন্যই আমাদের এই বিক্ষোভ সমাবেশ।

এ সময় একটি অ্যাম্বুলেন্স (রোগীসহ) হাজির হলে বিক্ষোভকারীরা দ্রুত অ্যাম্বুলেন্সটিকে পার করে দেন এবং হাত উঁচিয়ে দায়িত্বরত সহকর্মীদের স্লোগানে বাহবা দিচ্ছিলেন। উল্লেখ্য, বিক্ষোভকারীরা কেউ দায়িত্ব বা কাজ ছেড়ে বিক্ষোভে অংশ গ্রহণ করেননি।বিক্ষোভ মিছিলটি পর্তুগাল সরকারের মর্ডানাইজেশন মন্ত্রণালয়ের সামনে থেকে শুরু হয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে স্মারকলিপি প্রদানের মাধ্যমে শেষ হয়।

Leave a Reply