পশুদের করোনা টিকা প্রয়োগ শুরু করেছে রাশিয়া
পশুদের করোনা টিকা দেওয়া শুরু করেছে রাশিয়া

পশুদের করোনা টিকা প্রয়োগ শুরু করেছে রাশিয়া

ইমিগ্রেশন নিউজ ডেস্ক :

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে পশুদের শরীরে টিকা প্রয়োগ শুরু করেছে রাশিয়া। দেশটির কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বুধবার (২৬ মে) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

এর আগে গত মার্চ মাসে রাশিয়া জানায়, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে পশুদের শরীরে প্রয়োগের জন্য বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে বিশেষ ধরনের টিকার অনুমোদন দিয়েছে তারা।

রাশিয়ার পশু চিকিৎসা বিষয়ক পর্যবেক্ষক প্রতিষ্ঠান রসেলখোজনাদজোর স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোকে জানিয়েছে, দেশটির বিভিন্ন অঞ্চলে অবস্থিত পশু চিকিৎসা কেন্দ্রগুলোতে পশুদের টিকা দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। এসব অঞ্চলের বিভিন্ন পশুর শরীরে প্রয়োগ করা হচ্ছে কার্নিভাক-কোভ টিকা।

যদিও বিজ্ঞানীরা বলছেন যে, পশুদের মাধ্যমে মানব শরীরে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ব্যাপারে এখনও পর্যন্ত উল্লেখযোগ্য কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। তবে বিশ্বের অনেক দেশেই বিভিন্ন ধরনের পশুর শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। এসব প্রাণীর মধ্যে রয়েছে কুকুর, বিড়াল, উল্লুক, সিংহ ও মিঙ্ক (অনেকটা বেঁজির মতো দেখতে এক ধরনের প্রাণী)। কার্নিভাক-কোভ টিকা প্রয়োগ করা পশুর শরীরে আনুমানিক ছয় মাস করোনা প্রতিরোধী রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বিদ্যমান থাকে।

বার্তাসংস্থা আরআইএ’র বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বিবিসি জানিয়েছে, পর্যবেক্ষক প্রতিষ্ঠান রসেলখোজনাদজোর’র প্রধানের উপদেষ্টা জুলিয়া মেলানো বলছেন, রাশিয়ার পশু চিকিৎসা কেন্দ্রগুলোতে পশুপালক ও ঘরোয়া ভাবে পশু লালন-পালন করেন এমন ব্যক্তিদের ক্রমবর্ধমান ভিড় দেখা যাচ্ছে। এছাড়া পশু সঙ্গে নিয়ে ভ্রমণ করে থাকেন এমন নাগরিকরাও পোষ্য প্রাণীটিকে টিকা দিতে কেন্দ্রে উপস্থিত হচ্ছেন।

চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়ার আগে পরীক্ষামূলক ব্যবহারে দেখা গেছে, কার্নিভাক-কোভ টিকা প্রাণীদের শরীরে প্রয়োগের জন্য পুরোপুরি নিরাপদ। এটি প্রাণিদেহে শতভাগ অ্যান্টিবডি তৈরিতে সক্ষম। টিকা দেওয়ার পর ছয় মাস পর্যন্ত এটি প্রাণীকে করোনা থেকে সুরক্ষা দিতে পারে।

Leave a Reply