বাংলাদেশি অভিবাসী হত্যার দায়ে সৌদি নাগরিকের মৃত্যুদণ্ড
সৌদি আরবের আদালত

বাংলাদেশি অভিবাসী হত্যার দায়ে সৌদি নাগরিকের মৃত্যুদণ্ড

ইমিগ্রেশন নিউজ ডেস্ক


সৌদি আরবে এমন ঘটনা ব্যতিক্রমই বলতে হবে। প্রতিনিয়ত শোনা যায়, নানা কারণে বাংলাদেশি শ্রমিকদের শাস্তির খবর। কিন্তু এবার বাংলাদেশি অভিবাসী হত্যার দায়ে সৌদি নাগরিকের মৃত্যুদণ্ডের খবর এল। ঘটনাটি যদিও বহু পুরোনো। ২০০৬ সালের জুন মাসের।

সৌদি আরবের দাম্মাম শহরের আবু হাদরিয়া সড়কের একটি পেট্রোল পাম্পে বাংলাদেশি অভিবাসী সাগর পাটোয়ারীর সাথে সৌদি নাগরিক উমর আল শাম্মেরির কথা-কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে উমর পিস্তল দিয়ে গুলি করে বসেন সাগরকে। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন সাগর। গুলি করার পর উমর ঘটনাস্থল হতে পালিয়ে যান।

দীর্ঘ ১৫ বছর আগের সেই হত্যাকাণ্ডের জন্য দোষী সাব্যস্ত হলেন উমর। দীর্ঘদিন তদন্তের পর স্থানীয় আইন প্রয়োগকারী বাহিনী উমর আল শাম্মেরীকে ২০১৮ সালে শনাক্ত এবং আটক করে বিচারের সম্মুখীন করে। অবশেষে রায় এল শাস্তির। মৃত্যুদণ্ডের রায় হয় উমর আল শাম্মেরির সাগর পাটোয়ারী হত্যা মামলার শুনানিতে দাম্মাম ক্রিমিনাল কোর্টে মৃতের ওয়ারিশদের পক্ষে অভিযুক্তের মৃত্যুদণ্ডের দাবি জানিয়ে এ পর্যন্ত ১২টি শুনানিতে বাংলাদেশ দুতাবাস প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন। গত ২৪ মার্চ অভিযুক্ত সৌদি নাগরিক উমর আল শাম্মেরির বিরুদ্ধে আনীত অভিযাগ প্রমাণিত হয়। কোর্ট আসামিকে শিরচ্ছেদের মাধ্যমে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের রায় প্রদান করেন। নিহত সাগর পাটোয়ারী কুমিল্লা জেলার বরুড়া উপজেলার, নাগিরপাড় গ্রামের হাজী সোনা মিয়ার সন্তান।

Leave a Reply