বাংলাদেশি ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তাদের জন্য কাতারে নতুন সম্ভাবনা

বাংলাদেশি ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তাদের জন্য কাতারে নতুন সম্ভাবনা

ইমিগ্রেশন নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশি অভিবাসীদের জন্য মধ্যপ্রাচ্যের কাতার অন্যতম একটি পছন্দের দেশ। বিভিন্ন সেক্টরে কর্মসংস্থানের পাশাপাশি বাংলাদেশি ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তাদের জন্যও দেশটিতে নতুন নতুন সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচিত হচ্ছে ধীরে ধীরে।
এবার সেই সম্ভাবনাটি আরো বেড়ে গেল। কাতার ফাইন্যান্সিয়াল সেন্টারের প্রধান নির্বাহীর সাথে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের বৈঠক ও তাদের মধ্যকার আলোচনা থেকে নতুন এ সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে।
সম্প্রতি কাতারে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো: জসীম উদ্দিন কাতারের ফাইন্যান্সিয়াল সেন্টারের (কিউএফসি) প্রধান নির্বাহী ইউসুফ আল জাইদার সাথে বৈঠক করেছেন। বৈঠকে দুপক্ষের মধ্যে ব্যবসায় সম্ভাবনা ও সুযোগ সৃষ্টি নিয়ে নানা বিষয়ে আলাপ হয় বলে জানিয়েছে দোহাস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস।
বৈঠকে কিউএফসির প্রধান নির্বাহী কাতার ফাইন্যান্সিয়াল সেন্টারের স্পন্সরশীপে নতুন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা এবং কিউএফসির অন্যান্য কার্যক্রম বিষয়ে রাষ্ট্রদূতকে বিস্তারিত অবহিত করেন। কাতারে অবস্থানরত বাংলাদেশী ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তারা যাতে বিনিয়োগকারী বা ব্যবসায়ী হিসেবে ব্যবসা পরিচালনা ও বিনিয়োগ কার্যক্রম করতে পারে সে বিষয়ে রাষ্ট্রদূত কিউএফসির সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন।।
তারই প্রেক্ষিতে সুনির্দ্দিষ্ট কিছু সেক্টরে কিউএফসির আওতায় শতভাগ মালিকানায় বাংলাদেশি উদ্যোক্তারা কাতারে কোম্পানি খুলতে পারে বলে প্রধান নির্বাহী রাষ্ট্রদূতকে অবহিত করেন।
কিউএফসির তত্বাবধানে ক্রাউড ফান্ডিং এর মাধ্যমে বিনিয়োগ তহবিল গঠনের বিষয়েও বিস্তারিত আলোচনা হয়। দু’দেশের উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে যোগাযোগ বৃদ্ধির জন্য বাংলাদেশী ও কাতারি ব্যবসায়ীদের সমন্বয়ে একটি বিজনেস কাউন্সিল গঠনের প্রস্তাব করেন রাষ্ট্রদূত। আর সে প্রস্তাবকে ইতিবাচক পদক্ষেপ হিসেবে অভিহিত করেন কিউএফসির প্রধান নির্বাহী।
এছাড়াও দু’দেশের আইটি খাতে উদ্যোক্তাদের নিয়ে শিগগিরই একটি ওয়েবিনার আয়োজনের বিষয়ে বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়। বৈঠকে অন্যান্যদের মধ্যে দূতাবাসের কাউন্সিলর (রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক) মো: মাহবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply