বিদেশ ফেরত নারী কর্মীদের জন্য বিশেষ প্রণোদনা চালু
৫০ হাজার নারীকর্মী দেশে ফিরে এসেছেন বলছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। এসব নারী শ্রমিকদের সাহায্যার্থে সরকার চালু করেছে বিশেষ প্রণোদনা।

বিদেশ ফেরত নারী কর্মীদের জন্য বিশেষ প্রণোদনা চালু

ইমিগ্রেশন নিউজ ডেস্ক:
করোনা মহামারীর কারণে বেড়েছে বেকারত্ব। অসংখ্য মানুষ সহায়-সম্বল হারিয়ে হয়েছে নি:স্ব। প্রবাসী কর্মীদের অনেকে হারিয়েছে মূল্যবান চাকরি। ফিরে আসছেন দেশে। এসময় প্রায় ৫০ হাজার নারীকর্মী দেশে ফিরে এসেছেন বলছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। এসব নারী শ্রমিকদের
সাহায্যার্থে সরকার চালু করেছে বিশেষ প্রণোদনা।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বিদেশফেরত নারী কর্মীদের বিশেষ এই আর্থিক প্রণোদনা চালু করেছে মূলত সরকারের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড। ইতোমধ্যে বাছাই-প্রক্রিয়ার মাধ্যমে অধিকতর সংকটে থাকা নারীদের মাঝে এই আর্থিক প্রণোদনা বিতরণ শুরু হয়েছে।

সম্প্রতি রাজধানী ঢাকার ইস্কাটন গার্ডেনে প্রবাসী কল্যাণ ভবনের (লেভেল-১) বিজয়’৭১ মিলায়নতনে প্রধান অতিথি হিসেবে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ। উদ্বোধনী দিনে ৭০ জন বিদেশ প্রত্যাগত নারী কর্মীর হাতে ২০ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তার চেক তুলে দেন মন্ত্রী।

এসময় মন্ত্রী বলেন, মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে করোনাকালীন বিদেশ প্রত্যাগত নারী কর্মীদের স্বাবলম্বী হতে এই বিশেষ আর্থিক সহায়তা দেয়া হচ্ছে। আত্মকর্মসংস্থানের জন্য ফলপ্রসূ ও লাভজনক খাতে বিনিয়োগের জন্য এইপ্রণোদনা।এর মধ্যে যাদের প্রয়োজন, তাদের বাছাই করে এই বিশেষ সহায়তা দেয়া হবে।

এ কার্যক্রমের আওতায় প্রাথমিকভাবে তিন হাজার প্রত্যাগত নারী কর্মীকে সহায়তা দেয়া হবে বলে জানান মন্ত্রী। করোনাকার কারণে দেশে ফিরে আসা কর্মীদের পুনর্বাসনে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের মাধ্যমে ইতোমধ্যে ১৮৬ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। মুজিবর্ষ ওস্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে প্রবাসী কর্মীদের কল্যাণে নতুন নতুন আরোউদ্যাগ গ্রহণ করছে সরকার।

বিদেশ যাওয়া-আসার সময় তাদের সাময়িক অবস্থানের জন্য বিমানবন্দরের নিকটবর্তী এলাকায় ডরমেটরি ও ব্রিফিং সেন্টার নির্মাণ করার কথাও জানান  মন্ত্রী। এছাড়া স্বল্প ব্যয়ে স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের লক্ষ্যে একটি হাসপাতাল ও ডায়গনস্টিক সেন্টার স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন
প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমদ।

Leave a Reply