ভারত সরকারের বৃত্তি নিয়ে উচ্চশিক্ষার সুযোগ
ভারত সরকারের বৃত্তি নিয়ে উচ্চশিক্ষার সুযোগ

ভারত সরকারের বৃত্তি নিয়ে উচ্চশিক্ষার সুযোগ

ইমিগ্রেশন নিউজ ডেস্ক:

ভারতবর্ষ! পৃথিবীর বুকে যেন আরেক পৃথিবী। বিশেষজ্ঞরা বলেন, ভারত ভ্রমণ করলে পুরো পৃথিবী ভ্রমণ হয়ে যায়। কারণ এতোটা বৈচিত্র্যময় দেশ ভারত। ভারত শিক্ষার দিক থেকে অগ্রশীল। দেশটি প্রতি বছর সরকারিভাবে উচ্চশিক্ষায় প্রচুর বিনিয়োগ করে থাকে। বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য প্রতি বছর ছাড়া
হয় বৃত্তি। ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশন্স (আইসিসিআর) এর মাধ্যমে এই বৃত্তি প্রদান করা হয়। ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষেও বৃত্তির ঘোষণা করেছে ভারত। আহ্বান করা হয়েছে আবেদন।

কীভাবে আবেদন করবেন?
আইসিসিআর বৃত্তির জন্য আবেদন করা যাবে অনলাইনে। ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশনের
এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ভারতের বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডির জন্য বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা বৃত্তি পাবেন। আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত আইসিসিআর বৃত্তির জন্য এ আবেদন করা যাবে। তবে মেডিসিন, প্যারামেডিকেল, ফ্যাশন কোর্স বাদে ভারতের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে বৃত্তির জন্য এ আবেদন করা যাবে।  এই বৃত্তির আবেদনে আগ্রহীদের http://a2ascholarsships.iccr.gov.in লিংকে লগইন করে আইডি ও পাসওয়ার্ড তৈরি করতে হবে। আবেদনকারীদের বয়স ১৮ বছর থেকে ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে।

আবেদনের যোগ্যতা কী?
*বিই-বিটেক আবেদনকারী প্রার্থীদের একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির পাঠ্যক্রমে পদার্থবিজ্ঞান, গণিত ও রসায়ন থাকতে হবে
*ভর্তির পর শিক্ষার্থীদের হোস্টেলে থাকতে হবে
*আবেদনকারী প্রত্যেক শিক্ষার্থী পাঁচটি বিশ্ববিদ্যালয় ও ইনস্টিটিউটে আবেদন করতে পারবেন
*১৮-৩০ বছরের হতে হবে
*ইংরেজির দক্ষতা যাচাইয়ে ৫০০ শব্দে ইংরেজিতে প্রবন্ধ লিখতে হবে প্রার্থীকে
*শিক্ষার্থীরা তার TOFEL-IELTS স্কোরও ইংরেজি দক্ষতা নির্ধারণে জমা দিতে পারবেন (যদিও কোর্সের জন্য TOFEL বা IELTS ব্যাধতামূলক নয়)

কী কী প্রয়োজন?

*আবেদন করতে শিক্ষার্থীদের মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক স্তরের নম্বরপত্র আপলোড করতে হবে
*আবেদনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ইংরেজিতে না থাকলে তা ইংরেজিতে অনুবাদ করে তবেই সাবমিট করতে হবে (অনুবাদ করা কাগজপত্র ছাড়া গ্রহণ করা হবে না)
*আলাদা ফাইলে ডাটাশিপট, একাডেমিক সার্টিফিকেট, মার্কশিপ, পাসপোর্টের প্রথম পেজ, দুটি রিকোমেনডেশন লেটার ও সর্বশেষ পাশ করা শ্রেণি সিলেবাস ইত্যাদি স্ক্যান করে জমা দিতে হবে
*আইসিসিআর বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের জন্য বার্ষিক ন্যূনতম ৫ লাখ ভারতীয় রুপির বা ৬ হাজার ৮০০ মার্কিন ডলারের মেডিকেল বিমা করা বাধ্যতামূলক

ভারতীয় হাইকমিশনের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, অনলাইনে আবেদন জমা দেওয়া
যাবে আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত। এ ছাড়া এ বৃত্তি–সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য জানতে ভারতীয় হাইকমিশনের শিক্ষা উইংয়ে (প্লট নম্বর: ১-৩, পার্ক রোড, বারিধারা, ঢাকা ১২১২; ফোন-৫৫০৬৭৩০১-৩০৮ এক্সটেনশন-১০৯৬/১১১২; ই-মেইল: edu1.dhaka@mea.gov.in) যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

আইসিসিআর বৃত্তির বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন:
https://www.hcidhaka.gov.in/press?id=eyJpdiI6InlTcG1JQmM5c09NaldsbXRxRENUNmc9PSIsInZhbHVlIjoiRDdpS3FXWDdtNyt0M0s5aVpKMkNQQT09IiwibWFjIjoiNWRiYzU4NzFlMjNhNWRhNmE2MWVjYWJiZjBhMzZhZjVkZTYyMWE5NjE1OTk1ZDU2NDVjMmE3OGY5MTI4ZGU2ZiJ9

Leave a Reply