মাদ্রিদে আন্তর্জাতিক আইএমইএক্স মেলায় অংশ নিল বাংলাদেশ
স্পেনে আএমইএক্স মাদ্রিদ ১৯তম মেলায় প্রথম বারের অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ।

মাদ্রিদে আন্তর্জাতিক আইএমইএক্স মেলায় অংশ নিল বাংলাদেশ

ইমিগ্রেশন নিউজ ডেস্ক 

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের উৎপাদক, ব্যবসায়ী, আমদানি-রফতানিকারকদের নিয়ে স্পেনে আএমইএক্স মাদ্রিদ নামক আন্তর্জাতিক বাণিজ্য বিষয়ক ইভেন্ট  আয়োজন করে দেশটির সংবাদমাধ্যম ‘মনেদা উনিকা’।  বুধবার (১৬ জুন) তাদের ১৯তম এ মেলায় প্রথম বারের অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ।

৫ দিনব্যাপী এই আয়োজনে ৪দিন ভার্চুয়াল এবং ১দিন (১৬ জুন) সরাসরি মাদ্রিদের সিটি হল পালাসিও দে সিবেলেসে অনুষ্ঠিত হয়। এবার ৫০টির অধিক দেশ এই ইভেন্টে অংশগ্রহণ করছে।

বুধবার (১৬জুন) মাদ্রিদের সিটি হল পালাসিও দে সিবেলেসে দিনব্যাপী সেমিনার, কনফারেন্স ও রাউন্ড টেবিল বৈঠক হয়। বাংলাদেশের সাথে ব্যবসা ও বিনিয়োগের বিষয়ে আগ্রহী ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীদের এ ইভেন্টে বাংলাদেশের অংশগ্রহণের বিষয়টি জানানোর জন্য আয়োজক প্রতিষ্ঠান বিজ্ঞাপন প্রকাশ করে, এছাড়া দূতাবাসের পক্ষ থেকেও বিভিন্ন চেম্বারকে আমন্ত্রণ জানানো হয়।

বাংলাদেশ দূতাবাস মাদ্রিদের কমার্শিয়াল উইং ১৬ জুন সরাসরি ইভেন্টে বাংলাদেশের জন্য একটি স্টল বরাদ্দ নেয়। এ স্টলে স্পেনে অবস্থিত আগ্রহী ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীদের সাথে সভা ও তথ্য প্রদান করা হয়েছে। সরাসরি এই ইভেন্টে বাংলাদেশকে নিয়ে ব্যাপক আগ্রহ দেখিয়েছে স্পেনিশ ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীরা। 

বাংলাদেশের শুধু গার্মেন্টস সেক্টর নয়; অন্যান্য সেক্টরেও বিশেষ করে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি ,খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ, তথ্যপ্রযুক্তি, জনশক্তি, বর্জ্য ব্যবস্থাপনাসহ উৎপাদনশীল খাতে স্পেনিশ ব্যবসায়ীদের আগ্রহ রয়েছে বলে জানান দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর রেদোয়ান আহমেদ।

এ দিন বিকেল সাড়ে ৫ টায় ‘বিজনেস এন্ড ইনভেসমেন্ট অপুর্চুনিটিজ ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারে মূল বক্তব্য উপস্থাপনা করেন দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর রেদোয়ান আহমেদ। মূল প্রবন্ধ পাঠ করার পূর্বে সেমিনারে বক্তব্য রাখেন দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সারওয়ার মাহমুদ। তিনি বাংলাদেশকে দক্ষিণ এশিয়ার ইমার্জিং টাইগার হিসেবে আইএমএফ এবং বিশ্বব্যাংক এর মন্তব্য গুরুত্বসহকারে উল্লেখ 

তিনি বলেন, বাংলাদেশে বিনিয়োগ ও বাণিজ্য ক্ষেত্রে অনেক সুযোগ-সুবিধা তৈরি করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে বাংলাদেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ১০০টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। অনেকগুলোর কাজ এখন চূড়ান্ত পর্যায়ে। পৃথিবীর অনেক দেশ এসব অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগের জন্য এগিয়ে এসেছে। কারণ এখানে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে আকর্ষণীয় সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। স্পেনসহ ইউরোপও এখানে বিনিয়োগ করলে লাভবান হবে।

সেমিনার শেষে বাংলাদেশস্থ স্পেন বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্সের প্রেসিডেন্ট মিজ নুরিয়া লোপেজ বাংলাদেশে ব্যবসা ও বিনিয়োগের নানা ইতিবাচক দিকগুলো তুলে ধরেন।

মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর মেলায় অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশের স্টল পরিদর্শন করেন স্পেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সারওয়ার মাহমুদ, দূতাবাসের দূতালয় প্রধান এটিএম আব্দুর রউফ মণ্ডল,  প্রথম সচিব (শ্রম) মুতাসিমুল ইসলাম ও প্রথম সচিব তাহমিনা আরফিন শারমিন। এ ছাড়া ও স্পেন আওয়ামিলীগ এর সভাপতি এস আই রবিন, স্পেন বাংলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাহাদুল সুহেদসহ কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যাক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় আয়োজক আইএমইএক্স মাদ্রিদ ২০২১ কর্তৃপক্ষ মেলায় বাংলাদেশের সফল অংশগ্রহণ ও দূতাবাস থেকে সার্বিক সহযোগিতার জন্য বাংলাদেশে দূতাবাসকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। 

Leave a Reply