যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ২ কোটি টিকা চায় বাংলাদেশ
যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলারের সঙ্গে বৈঠকে এ চাহিদার কথা জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ২ কোটি টিকা চায় বাংলাদেশ

ই‌মি‌গ্রেশন নিউজ ডেস্ক :

করোনা প্রতিরোধী টিকাদান কার্যক্রম চালু রাখতে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে জরুরি ভিত্তিতে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার এক থেকে দুই কোটি ডোজ চাওয়া হয়েছে। এ তথ্য জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে বৃহস্পতিবার (৬ মে) দুপুরে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলারের সঙ্গে বৈঠকে এ চাহিদার কথা জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

বৈঠক শেষে মন্ত্রী জানান, যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে,  ভারত টিকা পেলে পাবে বাংলাদেশও।মোমেন বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র থেকে আমরা জরুরি ভি‌ত্তি‌তে ১০ থেকে ২০ মি‌লিয়ন (এক থেকে দুই কোটি) ডোজ টিকা চেয়েছি। বৈঠকে আমরা বলেছি, যখন অন্যান্য দেশকে করোনার টিকা দেয়া হবে,  তখন অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যেন আমাদেরও দেয়া হয়। রাষ্ট্রদূত রবার্ট আর্ল মিলার বলেছেন, উনি চেষ্টা করছেন।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘যত দ্রুত পারা যায় আমাদের টিকা দিতে আমেরিকাকে অনুরোধ জানিয়েছি। আমরা চিঠিতে ৪ মিলিয়ন টিকা চেয়েছি। এবার ১০ থেকে ২০ মিলিয়নের কথা বলেছি। বেশি বলতে তো সমস্যা নাই; যা পাওয়া যায়।’ মন্ত্রী জানান, ‘রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন, সঠিক দিনক্ষণ দেয়া যাবে না। কিন্তু এ নিয়ে আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করছেন। আমরা জেনেছি, তাদের কাছে ৬০ মিলিয়নের মতো টিকা পড়ে আছে। আমরা আমাদের দেশে দ্বিতীয় ডোজ সম্পন্ন করতে তাদের কাছে জরুরি ভিত্তিতে টিকা চেয়েছি।’

ভারত থেকেও জরুরি ভিত্তিতে টিকা চাওয়া হয়েছে বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আমরা ভারতের আশাও ছেড়ে দিইনি। তাদেরও আমরা টিকা পাঠাতে বলেছি।’ দেশে ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে গণটিকাদান কর্মসূচি শুরু হয় সিরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া উৎপাদিত টিকা দিয়ে। তবে হঠাৎ ভারতের এ প্রতিষ্ঠান টিকা রপ্তানি বন্ধ করে দেয়ায় ডোজ সংকটে পড়ে দেশ। এমন বাস্তবতায় চীন ও রাশিয়ার দিকে ঝুঁকছে বাংলাদেশ।

Leave a Reply