সৌদি জাজান প্রদেশে বাংলাদেশিদের বিনিয়োগ ও ব্যবসা নিয়ে আলোচনা

সৌদি জাজান প্রদেশে বাংলাদেশিদের বিনিয়োগ ও ব্যবসা নিয়ে আলোচনা

সৌদি আরবের জাজান প্রদেশের গভর্নর প্রিন্স মোহাম্মদ বিন নাসের বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদ এর সাথে বৈঠক করেছেন সৌদি আরবে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার)। বৈঠকে সৌদি আরবে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের বাণিজ্য সম্প্রসারণ, বিনিয়োগসহ নানা বিষয়ে আলোচনা হয়। একইসাথে সৌদি ব্যবসায়ীদেরকেও বাংলাদেশে বিনিয়োগ বাড়ানোর আহ্বান জানান তিনি।

এ সময় গভর্নর বাংলাদেশে বিনিয়োগের দারুণ সব সুযোগ রয়েছে জেনে সন্তোষ প্রকাশ করেন। সেই সঙ্গে জাজান প্রদেশের ইকোনমিক সিটি ‘বেইশ’ এ বাংলাদেশী ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের অনুরোধ জানান। তিনি এ অঞ্চলের সমুদ্র বন্দর, পর্যটন এবং মানবসম্পদ খাতে সহযোগিতার বিষয়ে গুরুত্ব তুলে ধরেন।

বৈঠকে সৌদি আরবের ভিশন-২০৩০ বাস্তবায়নে অভিবাসী বাংলাদেশীদের অবদানের ভূয়সী প্রশংসা করেন গর্ভনর। অঞ্চলে বসবাসরত বাংলাদেশীদের কর্মদক্ষতা এবং অন্যান্যদের তুলনায় আইন কানুন মেনে চলার বিষয়েও তিনি প্রশংসা করেন বাংলাদেশিদের। 

 রাষ্ট্রদূত সৌদি আরবের ভিশন ২০৩০ বাস্তবায়নে পর্যটন খাতে সহযোগিতার ওপর জোর দেন এবং দুদেশের পর্যটন কর্তৃপক্ষের মধ্যে পারস্পরিক যোগাযোগ বৃদ্ধি করে পর্যটক বিনিময়ের প্রস্তাব দেন। জাজান প্রদেশের সমুদ্র, পাহাড় ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্য  উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে বলে আশা প্রকাশ করেন। সেই  ২৩ লক্ষ বাংলাদেশি অভিবাসীর কর্মসংস্থানের জন্য বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ ও ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান এর প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন রাষ্ট্রদূত। এছাড়া অভিবাসীদের করোনা ভাইরাসের চিকিৎসা সহায়তা প্রদান ও বিনামূল্যে করোনা ভাইরাসের টিকা প্রদানের জন্য ধন্যবাদ জানান। জাজান অঞ্চলে সমুদ্র বন্দর ও আফ্রিকা মহাদেশের নিকটবর্তী হওয়ায় ব্যবসা বাণিজ্যের অপরিসীম সম্ভাবনা রয়েছে। বিভিন্ন দেশ থেকে এই প্রদেশে বিনিয়োগ সুবিধা অপরীসিম। এখানে বাংলাদেশি একক ও যৌথ বিনিয়োগকে স্বাগত জানান প্রদেশের প্রধান । 

Leave a Reply