স্পেনে বাংলাদেশ দূতাবাসে বঙ্গবন্ধুর ‘জুলিও কুরি’ পুরস্কারের  বার্ষিকী উদযাপন
স্পেনে বাংলাদেশ দূতাবাসে বঙ্গবন্ধুর ‘জুলিও কুরি’ পুরস্কারের ৪৮তম বার্ষিকী উদযাপন

স্পেনে বাংলাদেশ দূতাবাসে বঙ্গবন্ধুর ‘জুলিও কুরি’ পুরস্কারের বার্ষিকী উদযাপন

সাহাদুল সুহেদ, স্পেন :
স্পেনস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘জুলিও কুরি’ শান্তি পুরস্কার প্রাপ্তির ৪৮তম বার্ষিকী উদযাপন করা হয়েছে। বাংলাদেশ দূতাবাসের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এ উপলক্ষে ২৩ মে মাদ্রিদে বাংলাদেশ দূতাবাস হলরুমে আয়োজিত আলোচনা সভায় দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সারওয়ার মাহমুদ ও দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘জুলিও কুরি’ শান্তি পুরস্কার প্রাপ্তির ৪৮তম বার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সারওয়ার মাহমুদ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় বিশ্বনেতাদের পাশাপাশি বঙ্গবন্ধুর অবদান তুলে ধরেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর নেতৃত্বে দীর্ঘ নয় মাস মুক্তি সংগ্রামের মাধ্যমে ১৯৭১ সালে স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশের অভ্যুদয় ছিল পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর শোষণ, বঞ্চনা ও বৈষম্যের বিরুদ্ধে বিজয়। ফ্যাসিবাদবিরোধী, সাম্রাজ্যবাদবিরোধী ও শোষণের বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর সংগ্রাম বিশ্ব মানবতার ইতিহাসে চির অম্লান হয়ে আছে।

রাষ্ট্রদূত বলেন, বঙ্গবন্ধু আজ উপস্থিত না থাকলেও তার মহান আদর্শ, উদ্দেশ্য এবং তার নেতৃত্বে প্রতিষ্ঠিত স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ আজ দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলছে। বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে শান্তির স্বপক্ষে বাংলাদেশ কর্তৃক গৃহীত বিবিধ পদক্ষেপ বিশ্বব্যাপী প্রভূত প্রশংসিত হয়েছে। মিয়ানমার থেকে ১.১ মিলিয়ন রোহিঙ্গা শরনার্থীদের বাংলাদেশ আশ্রয় দিয়েছে। প্রতিবছর জাতিসংঘে বাংলাদেশ কর্তৃক প্রস্তাবিত শান্তির স্বপক্ষে ‘রেজুলিয়শন’ ব্যপকভাবে গৃহীত হয়।
দূতাবাসের প্রথম সচিব তাহসিনা আফরিন শারমিনের সঞ্চালনায় এ আলোচনা সভায় কমার্শিয়াল কাউন্সেলর রেদোয়ান আহমেদ এবং প্রথম সচিব (শ্রম) মুতাসিমুল ইসলামও অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানের শেষে ‘বিশ্ব শান্তির দূত- জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’ শীর্ষক একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

প্রসঙ্গত, ১৯৭৩ সালের ২৩ মে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে বিশ্ব শান্তি পরিষদ কর্তৃক জুলিও কুরি শান্তি পদকে ভুষিত করা হয়। বিশ্বখ্যাত বিজ্ঞানী ম্যারী কুরি ও পিয়েরে কুরি দম্পত্তি বিশ্ব শান্তির সংগ্রামে যে অবদান রেখেছেন, তা চিরস্মরণীয় করে রাখার লক্ষ্যে বিশ্ব শান্তি পরিষদ ১৯৫০ সাল থেকে ফ্যাসিবাদবিরোধী সংগ্রামে, মানবতার কল্যাণে, শান্তির সপক্ষে বিশেষ অবদানের জন্য বরণীয় ব্যক্তি ও সংগঠনকে জুলিও কুরি শান্তি পদকে ভূষিত করে আসছে।

Leave a Reply