স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধীদলীয় নেতার শুভেচ্ছা
অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধীদলীয় নেতার শুভেচ্ছা

কাউসার খান, সিডনি, অস্ট্রেলিয়া :

বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী, বিরোধীদলীয় নেতাসহ দেশটির আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী ও নেতা। আজ বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসরত বাংলাদেশিদের উদ্দেশে বাণী দেন প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন। একই দিনে আরও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন দেশটির বিরোধী দল লেবার পার্টির সংসদীয় নেতা অ্যান্থনি অ্যালবানিজ।

এ ছাড়া স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বাংলাদেশিদের আরও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন দেশটির অভিবাসনমন্ত্রী অ্যালেক্স হাক, নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী গ্ল্যাডিস বেরেজিক্লিয়ান, নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যের বিরোধী দলের প্রধান জোডি ম্যাকে, বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ বব কারসহ প্রমুখ।

প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন তাঁর বাণীতে গত ৫০ বছরে বাংলাদেশের কৃষি, শিল্প ও উন্নয়ন খাত, বিশেষ করে নারী ও শিশুদের উল্লেখযোগ্য সাফল্য অর্জনের প্রশংসা করেন।

স্বাধীন বাংলাদেশকে বিশ্বের বুকে স্বীকৃতি দেওয়া অন্যতম প্রধান দেশ হিসেবে অস্ট্রেলিয়া গৌরব বোধ করে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। মরিসন তাঁর শুভেচ্ছাবার্তায় দেশটিতে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের কথা উল্লেখ করে সবাইকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশের মধ্যে যোগসূত্র বৃদ্ধিকারী অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসরত বাংলাদেশিরা আমাদের দেশের জাতীয় পর্যায়ের মূল্যবান অংশ হিসেবে তাঁদের অবদান চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে।’ এ ছাড়া ২০২২ সালে অস্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের সুবর্ণজয়ন্তী উদ্‌যাপনের আশাও ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন।

অন্যদিকে বিরোধী দল লেবার পার্টির সংসদীয় প্রধান অ্যান্থনি অ্যালবানিজ তাঁর বাণীতে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর পাশাপাশি মুজিব বর্ষেরও শুভেচ্ছা জানান। স্বাধীনতার পর বাংলাদেশকে জাতিসংঘের সদস্য হতে অস্ট্রেলিয়ার তৎকালীন লেবার পার্টির সরকারের অবদানের কথা স্মরণ করেন তিনি। এ ছাড়া বাংলাদেশ সফরে যাওয়া একমাত্র অস্ট্রেলিয়ান প্রধানমন্ত্রী লেবার নেতা গফ হুইটলামের কথাও স্মরণ করেন।
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে অস্ট্রেলিয়ার অভিবাসনমন্ত্রী অ্যালেক্স হক তাঁর বাণীতে ধন্যবাদ জানান দেশটিতে বসবাসরত বাংলাদেশিদের।

Leave a Reply